চাঁদাবাজ পুলিশকে লাঞ্চিত করলেন কুবি শিক্ষার্থীরা

তানভীর আহমেদ রাসেল, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় : মহাসড়কের রাস্তায় মালবাহী গাড়ি থেকে চাঁদা নিচ্ছে এমন অভিযোগে এক পুলিশ সদস্যকে পিটিয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুবি) শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার কুমিল্লার কোটবাড়ি বিশ্বরোডস্থ এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়,  বিকাল ৩:১০ মিনিটের সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস (কুমিল্লা-স ১১-০০১১) কুমিল্লা কোটবাড়ি বিশ্বরোড এলাকায় পৌঁছালে বাসটির ড্রাইভার পার্শ্ববর্তী থেমে থাকা একটি মালবাহী লড়ি থেকে এক পুলিশ সদস্যকে চাঁদা নিতে দেখে মোবাইলে ভিডিও করতে যান। এসময় ঐ পুলিশ সদস্য তার কাছ থেকে মোবাইলটি ছিনিয়ে নেয়। এরপর বাসে থাকা শিক্ষার্থীরা নেমে আসলে ঐ পুলিশ সদস্য নিজের হাতে থাকা অস্ত্র তাক করে শিক্ষার্থীদের দিকে। শিক্ষার্থীরা ক্ষেপে গিয়ে ঐ পুলিশ সদস্যকে মারধর করে এবং মোবাইল ফেরত নেয়। পরে অপর এক পুলিশ সদস্য মো: কামালের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থী শাহরিয়ার নোবেল জানান, বাসে বসে ছিলাম। হঠাৎ হট্টগোল শুনে নিচে নেমে জানতে পারি অভিযুক্ত পুলিশ নাকি রাস্তার পাশে দাঁড় করিয়ে রাখা এক ট্রাক থেকে চাঁদা নিচ্ছিল। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় বাসের ড্রাইভার এই ঘটনা ভিডিও করতে গেলে ঐ পুলিশ তার হাত থেকে মোবাইলটি ছিনিয়ে নেয়। পরে শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্ধ হয়ে তাকে মারধর করে৷

আরেক শিক্ষার্থী আশিকুজ্জামান রাব্বি বলেন, যেখানে অন্যায় হবে শিক্ষার্থীরা সেখানেই প্রতিরোধ করবে। ঐ পুলিশ রাস্তার শৃঙ্খলা রক্ষার পরিবর্তে চাঁদাবাজিতে ব্যস্ত ছিলো। সেই অন্যায়কাজের ভিডিও করতে গেলে আমাদের বাস ড্রাইভারের মোবাইল কেড়ে নেয় এবং তাকে গালাগালি করে। তাই ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা তাকে মারধর করেছে।

এ বিষয়ে ময়নামতি হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব আলম জানান, কারও মোবাইল কেড়ে নেওয়া গুরুতর অপরাধ। আমাদের কোনো পুলিশ সদস্য সেটা করে থাকলে আপনারা থানায় এসে অভিযোগ জানালে আমরা ব্যবস্থা নিবো।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন জানান, আমি বিষয়টি শুনেছি। হাইওয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে এ ধরনের ঘটনার পুনারাবৃত্তি যাতে না হয় এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করবো।

সবখবর/ নিউজ ডেস্ক

Facebook Comments