কর্মস্থলে যেতেই দেড় দুই হাজার টাকা নাই, খাব কি ? - সব খবর | Sob khobar
  1. admin@sobkhobar.com : admin :
  2. editor@sobkhobar.com : editor :
কর্মস্থলে যেতেই দেড় দুই হাজার টাকা নাই, খাব কি ? - সব খবর | Sob khobar




কর্মস্থলে যেতেই দেড় দুই হাজার টাকা নাই, খাব কি ?

সব খবর রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময়: সোমবার, ২ আগস্ট, ২০২১
  • ৯৯ জন পড়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি: পাটুরিয়া ফেরিঘাটে সকালে দিকে যাত্রীদের চাপ না থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে ফেরিঘাট এলাকায় কর্মস্থলমুখী যাত্রীর ভিড় বাড়ছে। কোন প্রকার সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি না মেনে গাদাগাদি করে দৌলতদিয়া ঘাট থেকে নদী পার হয়ে পাটুরিয়ায় আসছে এসব মানুষ।

সরেজমিন পাটুরিয়ার তিনটি ঘাট এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। অপরদিকে লঞ্চঘাট এলাকায় যাত্রীদের তেমন ভীড় নেই। তবে অন্যান্য দিনের মত ভোগান্তি না পোহাতে হলেও যাত্রীদের গুনতে হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া। এক আগস্ট শিল্প-কারখানা খোলার খবরে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষ কর্মস্থল ঢাকায় ফিরছেন।

পাটুরিয়া ৩ নম্বর ফেরিঘাট এলাকায় কথা হয় পোশাকশ্রমিক সীমা আক্তারের সাথে। তিনি কুষ্টিয়া থেকে এসেছেন পাটুরিয়ায়। নবীনগরের বাইপেলে একটি পোষাক কারখানায় কাজ করেন। তিনি জানান, কুষ্টিয়া থেকে দৌলতদিয়া বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত বাস ভাড়া ১৫০ টাকা। কিন্তু সবার কাছ থেকে ৩৫০ টাকা নিয়েছে। ঘাট পাড় হয়ে দেখি নবীনগরের ভাড়া চায় ৫০০ টাকা। কালকে কারখানা খুলেছে কাল আসতে পারিনাই তাই বাধ্য হয়ে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে আজ যেতে হচ্ছে। কি করব, চাকরি তো করতে হবে।

আরো পড়ুন: দরজি মনির আটক

নড়াইল সদর উপজেলার বাশগ্রামের মো: সেলিম হোসেন। মিরপুরের একটি গার্মেন্টসে কাজ করেন। ইদের আগের দিন পরিবারের তিন সদস্য নিয়ে অনেক ভোগান্তিতে গ্রামে গিয়েছিলেন। সরকার ঘোষিত ১৪ দিনের কঠোর বিধিনিষেধে বাড়িতেই পরিবার পরিজন নিয়ে ছিলেন। ৩১ জুলাই অফিস থেকে কাজে ফেরার জন্য বলা হয়। কাল ফিরতে পারেননি বলে আজ সকালে নড়াইল বাস স্ট্যান্ড থেকে তারমত সাত জন ৬০০০ টাকা দিয়ে রিজার্ভ করে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে আসে। ঘাট পাড় হওয়ার পর প্রাইভেটকারে জনপ্রতি ৭০০ করে লাগবে বলে জানান তিনি।

সীমা আক্তার, সেলিম হোসেনের মত কয়েকজনের সাথে কথা হলে তারা জানান, পোষাক শ্রমিকদেরকে সরকার ও মালিকরা কখনো মানুষ মনে করে না। যদি মানুষ মনে করত তাহলে আমাদের নিয়ে এমন তামাশা করত না। এই যে হুটহাট সিদ্ধান্ত নেয় তারা এতে করে বিপাকে পড়ে যাই আমরা। আমাদেরতো নিজস্ব কোন গাড়ি নাই। পায়ে হেঁটে, বৃষ্টিতে ভিজে ৩/৪ গুন টাকা দিয়ে কর্মস্থলে ফিরতে হচ্ছে। এমন লকডাউনের জন্য আমরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হই। আমরা কি দেশের বোঝা?

আরো পড়ুন: সেই পিয়াসা আটক

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা কার্যালয়ের উপ-মহাব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) জিল্লুর রহমান বলেন, আজও মানুষ কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ। সকালে ঘাটে চাপ না থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে ফেরিঘাট এলাকায় ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ বেড়েছে। তবে যানবাহনের সংখ্যা কম। পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে ১৬টি ফেরির মধ্যে নয়টি ফেরি দিয়ে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে।

সবখবর/ আআ




Comments are closed.

এই বিভাগের আরো খবর




ফেসবুকে সব খবর