ঘিওরে মাইলাগী আশ্রয়ন প্রকল্পের বেহাল দশা, সংস্কারের দাবী
  1. admin@sobkhobar.com : admin :
  2. editor@sobkhobar.com : editor :
ঘিওরে মাইলাগী আশ্রয়ন প্রকল্পের বেহাল দশা, সংস্কারের দাবী




ঘিওরে মাইলাগী আশ্রয়ন প্রকল্পের বেহাল দশা, সংস্কারের দাবী

সব খবর রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময়: রবিবার, ২৬ জুন, ২০২২
  • ৯১ জন পড়েছে

রামপ্রসাদ সরকার দীপু, স্টাফ রিপোর্টার: মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার মাইলাগী আশ্রয়ন প্রকল্পের বেহলা দশা। প্রকল্পের অধিকাংশ ঘরগুলোই ভাঙ্গাচোরা। দীর্ঘ ১৭ বছর ধরে সংস্কার না করার অধিকাংশ ঘরই এখন ব্যবহার অনুপযোগী। বৃষ্টির দিনে প্রকল্পের বাসিন্দাদের পোহাতে হয় চরম দূর্ভোগ। এছাড়াও প্রকল্পের টয়লেট ও নলকুপগুলো হয়ে পড়েছে ব্যবহার অযোগ্য। মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন প্রকল্পের শতাধিক বাসিন্দা।

জানা গেছে, ২০০৪-০৫ অর্থ বছরে ঘিওর উপজেলা পুরাতন ধলেশ^রী নদীর পাশে মাইলাগী গ্রামে ১২৭ শতাংশ জমির ওপরে সুন্দর মনোরম পরিবেশে নির্মাণ করা হয়েছিল আশ্রয়ন প্রকল্পটি। বিভিন্ন এলাকার ছিন্নমূল, হতদরিদ্র ভূমিহীন মানুষের জন্য ৮টি ব্যারাক নির্মান করা হয়েছিল। প্রায় ২ শতাধিক মানুষ এতে বসবাস শুরু করেছিল। বর্তমানে প্রকল্পের ইতোমধ্যে ৫টি ব্যারাক ধলেশ^রী নদীতে বিলিন হয়ে গেছে। ৩টি ব্যারাকে বর্তমানে ২৮টি কক্ষ আছে। বর্তমানে শতাধিক মানুষ এখানে বসবাস করছেন। প্রকল্পের অধিকাংশ টয়লেট, গোসলখানা ও টিউবয়েলগুলো অকোজো হয়ে পড়েছে।

প্রকল্পের বাসিন্দারা জানান, নির্মানের পর আর প্রকল্পটি সংস্কার করা হয়নি। প্রকল্পের এখন জীর্ণদশা। টয়লেট, গোসলখানা ও টিউবয়েল গুলোও অকেজো হয়ে গেছে। এছাড়া বৃষ্টির এলে ঘরে থাকা কষ্ট হয়ে যায়। বাইরের অবস্থাও ভাল না। আমাদের কোথাও যাবার জায়গা না থাকায় আমরা মাথা গুজে পড়ে আছি। প্রতি বছর ধলেশ^রী নদীর ভাঙ্গনে আমরা আতঙ্কে থাকি। সরকার যেন আমাদের থাকার ঘরগুলো মেরামত করে বসবাসের উপযোগি করে দেয়। আমরা নিদারুণ কষ্টে দিন যাপন করছি।

ঘিওর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ অহিদুল ইসলাম টুটুল জানান, আশ্রয়ন প্রকল্পটি বর্তমানে সংস্কার করা জরুরী প্রয়োজন। কিন্তু বরাদ্দ না আসায় এখানে কোন ধরনের কাজ করা যাচ্ছেনা। তবে আমার এখানে কোন কিছু আসলে আমি তাদের সাহায়্য এবং সহযোগিতা করে থাকি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার হামিদুর রহমান জানান, আমি আশ্রয়ন প্রকল্পগুলো সরেজমিন পরিদর্শন করেছি। ঘরগুলোর অবস্থা খুববই খারাপ। সরকারি বরাদ্দ আসলে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।




Comments are closed.

এই বিভাগের আরো খবর




ফেসবুকে সব খবর