দ্যা ম্যাজিক সাইকেল (বয়:সন্ধিকাল) - সব খবর | Sob khobar
  1. admin@sobkhobar.com : admin :
  2. editor@sobkhobar.com : editor :
দ্যা ম্যাজিক সাইকেল (বয়:সন্ধিকাল) - সব খবর | Sob khobar




দ্যা ম্যাজিক সাইকেল (বয়:সন্ধিকাল)

সব খবর রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময়: রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১১৮ জন পড়েছে

বয়:সন্ধিকালের এই সময়টাতে সন্তানের জন্য পরিবার কেই বটবৃক্ষ হতে হবে। মা-বাবার ব্যস্ততার মাঝে সময় বের করতে হবে। আপনার নিজের সাথে মেলাবেন না। আপনি আর আপনার সন্তান একই যুগের না। আপনি ১৪/১৫ তে বিয়ে করে লায়েক হয়ে গেছেন। আপনার সন্তান এই বয়সে কিশোর কিশোরী। কিংবা আপনার সময়কার নিষিদ্ধ জিনিস গুলো হতে পারে এই যুগে আর নিষিদ্ধ নেই। আপনাকে সবকিছু একটা সাম্যাবস্থায় আনতে হবে।

আপনি কড়া শাসনে বড় হয়েছেন কিন্তু বাদ রেখেছিলেন কিছু? তাই আপনি আর আপনার সন্তানের কক্ষপথ এক নাও হতে পারে। নিষিদ্ধ জিনিসের প্রতি আকর্ষণ মানুষের “হাওয়া আর আদমের যুগ” থেকেই শুরু। আপনি জানতে চেষ্টা করুন আপনার সন্তান কিসে আকৃষ্ট হতে পারে।

বিপজ্জনক মোবাইল গেম: এগুলো আপনি জানুন। তারপর সন্তান কে জানান। অনলাইন গেমিং না করে ইনডোর। আউটডোর গেম শেখান। আপনিও খেলুন। আপনি ও আপনার সন্তানের সাথে ক্রিকেটার হয়ে যান। আপনারও মেদ কমবে।

কিশোর গ্যাং: রাজনৈতিক ছত্রছায়া কিংবা নিজেদের উদ্ভাবিত কিশোর গ্যাং এর সদস্য যেনো না হয় আপনার সন্তান। আপনার সন্তানের গতিবিধি লক্ষ্য করুন।

মগজ ধোলাই: কাছের কেউ আপনার সন্তানকে ধর্মের কথা বলে সমাজ বিরোধী বা জঙ্গীবাদ কিংবা ধর্ম থেকে দূরে নিয়ে উগ্র নাস্তিকতায় আকৃষ্ট করছে কীনা জানতে চেষ্টা করুন।

পর্নোগ্রাফি: হয়ত আপনার অলক্ষ্যে বন্ধুদের সাথে মিশে নীরবে নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়ছে কিনা। তাকে অ্যাডভেঞ্চার আর বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী মুভির দিকে আকৃষ্ট করুন। প্রযুক্তি ব্যবহারে নিয়ন্ত্রণ আনুন। গল্পের বই পড়ুক। সাথে আপনিও পড়ুন। বাড়িতে মিনি লাইব্রেরি বানান। বই কিনে দেউলিয়া কে হয়েছে বলে জানা নাই?

মাদক: বন্ধুদের সাথে হঠাৎ ধূমপান তাকে আস্তে আস্তে মাদকাসক্তের দিকে নিয়ে যাচ্ছে কিনা খেয়াল করুন। সন্তান ছেলে মেয়ে যাই হোক সে প্রথম পরিচ্ছন্ন যৌনশিক্ষা পাবে আপনার কাছে। অন্য কেউ তাকে বিপথে না নিয়ে যাক। আপনার ছেলে মেয়ে শেভিং ব্লেড কিংবা স্যানিটারি প্যাড কিনতে যদি আপনাকে পাশে না পায়, আপনার সন্তান বিপথে যাবেই।

সমবেদনা: কিশোর বয়সে প্রেমাসক্ত হয়ে যাবার সন্তানকে আগেই বোঝান। পরেও বোঝান। প্রেমে ব্যর্থ হয়ে মারাত্মক কিছু করবার আগেই আটকান। কিংবা পরীক্ষায় ব্যর্থতা যেনো তাকে হতাশাগ্রস্ত না করে। সবাই নাসার বিজ্ঞানী হবেনা কেউ কেউ হতে পারে দক্ষ সাতারু কোনো পেশাই খারাপ নয়।

তাকে একা গড়ে উঠবার ও সময় দিন। তাকে সবসময় তদারকি করছেন এটা যেনো তার ওপর আরোপিত না হয়। সে যেনো নেতিবাচক ভাবে না নেয়। তাকে ধর্মীয় ও নৈতিক শিক্ষা দিন। সবকিছু সিলেবাসে বা টেক্সটবুকে নেই, আপনি শেখান।

আপনি হোন প্রথম বন্ধু। এই বয়ঃসন্ধিকালের সঠিক পরিচর্যার অভাবে বিপুল পরিমাণ কিশোর কিশোরী বিপথে যাচ্ছে, এর সংখ্যাও কম নয়। এই সময়ের পরিচর্যা আপনাকে সফল বাবা মা হিসেবে বিশ্বে পরিচয় করাবে।

আগেই এই বিষয়গুলো নিজের কব্জায় নিন। আপনার সন্তান হবে আপনার ও নিঃসঙ্গতার সাথী নিশ্চিত থাকুন। খেয়াল রাখবেন একটি সূর্য উদিত হবার আগেই তা যেনো অস্ত না যায়।

লেখক: ডা: কাজী একে এম রাসেল, আবাসিক মেডিকেল অফিসার, ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল, মানিকগঞ্জ।




Comments are closed.

এই বিভাগের আরো খবর




ফেসবুকে সব খবর