ধর্ষণ মামলায় সাক্ষী না দেওয়ায় ডাক্তারকে কারণ দর্শানোর নির্দেশ আদালতের - সব খবর | Sob khobar
  1. admin@sobkhobar.com : admin :
  2. editor@sobkhobar.com : editor :
ধর্ষণ মামলায় সাক্ষী না দেওয়ায় ডাক্তারকে কারণ দর্শানোর নির্দেশ আদালতের - সব খবর | Sob khobar




ধর্ষণ মামলায় সাক্ষী না দেওয়ায় ডাক্তারকে কারণ দর্শানোর নির্দেশ আদালতের

সব খবর রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময়: মঙ্গলবার, ২৬ নভেম্বর, ২০১৯
  • ৪১৫ জন পড়েছে

মানিকগঞ্জ : মানিকগঞ্জে একটি ধর্ষণ মামলায় আদালতে সাক্ষী না দেওয়াতে হরিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার আব্দুল মালেক খানের বেতন-ভাতা বন্ধসহ শাস্তিমূলক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন কেন করা হবে না তা জানতে আগামী ১৯ জানুয়ারী আদালতে উপস্থিত হয়ে তাকে কারণ দর্শানোর নিদেশ দিয়েছেন বিচারক।

মঙ্গলবার বিকেলে মানিকগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আলী হোসাইন এই আদেশ দেন।

মানিকগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি এ কে এম নূরুল হুদা রুবেল জানান, ২০১৪ সালে ১২ ফেব্রুয়ারী ধর্ষন মামলায় আসামীর বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ পত্র গঠন করা হয়। মামলায় ভিকটিমের ধর্ষণ জনিত ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন করেন হরিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার আব্দুল মালেক। তাকে সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য একাধিক বার সমন জারি করা হলেও তিনি আদালতে সাক্ষী দেননি। সাক্ষীর বরাবর ইস্যুকৃত সময় তামিলকারী হরিরামপুর থানার এএসআই আমিনুর এই মর্মে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন। অদ্য তারিখে (২৬ নভেম্বর) আদালতে সাক্ষী ডাক্তার আব্দুল মালেক খান অনুপস্থিতি থাকায় বিচারকের প্রতিয়মান হয় যে সাক্ষী ইচ্ছাকৃত ভাবে আদালতের সমন এড়িয়ে চলছেন।এতে মামলা নিষ্পত্তিতে বিলম্ব হচ্ছে। আগামী ১৯ জানুয়ারী সাক্ষী আব্দুল মালেক খানকে স্ব-শরীরে আদালতে উপস্থিত হয়ে কারন দর্শানোর জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এব্যাপারের হরিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার আব্দুল মালেক খানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ডাক্তারী পরীক্ষার অনেক মামলার আদালতে সাক্ষী দেওয়া হয়েছে। এই মামলাটি সম্পর্কে তিনি অবগত নন। আদালত যদি ১৯ জানুয়ারী স্ব-শরীরে উপস্থিত হতে বলে তবে নির্ধারিত তারিখে আদালতে তিনি উপস্থিত হবেন।




Comments are closed.

এই বিভাগের আরো খবর




ফেসবুকে সব খবর