বাঙালিকে কেউ দাবায়ে রাখতে পারবে না : প্রধানমন্ত্রী - সব খবর | Sob khobar
  1. admin@sobkhobar.com : admin :
  2. editor@sobkhobar.com : editor :
বাঙালিকে কেউ দাবায়ে রাখতে পারবে না : প্রধানমন্ত্রী - সব খবর | Sob khobar




বাঙালিকে কেউ দাবায়ে রাখতে পারবে না : প্রধানমন্ত্রী

সব খবর রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময়: মঙ্গলবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৩২০ জন পড়েছে

ঢাকা: মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র ৪৯তম বিজয় দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পাকিপ্রেমী যারা, তারা বিদেশেই থাক আর জেলখানায়ই থাক- তাদের চক্রান্ত কিন্তু থাকবেই। মুষ্টিমেয় কিছু দালাল থাকতে পারে। বাঙালিকে কেউ দাবায়ে রাখতে পারেনি, দাবায়ে রাখতে পারবেও না। সেটা আমরা প্রমাণ করেছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিজয়ের বেশে বাঙালি জাতি সারাবিশ্বে তার মর্যাদা নিয়ে চলবে। বাংলাদেশ হবে উন্নত, সমৃদ্ধ সোনার বাংলা। জাতির পিতার স্বপ্ন আমরা পূরণ করব। সেটাই আমাদের প্রতিজ্ঞা।

শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের সৌভাগ্য, তাঁকে আমরা পেয়েছিলাম। তিনি এসেছিলেন। তাঁকে আমরা পেয়েছিলাম দেশটা গড়ে তোলার জন্য। কিন্তু ষড়যন্ত্রকারীরা যারা তখনও পাকি প্রেমে মুগ্ধ, তাদের কারণেই আমাদের জীবনে অমানিষার অন্ধকারের মত ১৫ আগস্ট আসে। আমরা দুটি বোন বিদেশে ছিলাম। ছয় বছর রিফিউজি হিসেবে থাকতে হয়েছিল।

আওয়ামী লীগ আমাকে সভানেত্রী নির্বাচিত করে। আমি ফিরে আসি। অনেক বাধা পেরিয়ে আসি। আমার জীবনের একটাই লক্ষ্য ছিল- বাবা এই দেশ স্বাধীন করে গেছেন; এই দেশকে যারা ব্যর্থ রাষ্ট্র করতে চায়, স্বাধীনতাকে ব্যর্থ করতে চায়, আমরা তা
হতে দেবো না। যারা অন্তরে অন্তরে পাকিস্তান প্রেমে ভোগে, তাদের চক্রান্ত কখনও এই মাটিতে সফল হতে পারে না।

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, পাকিস্তন থেকে আমরা আলাদা হয়ে বাংলাদেশ স্বাধীন করেছি। অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিকভাবে, নীতি-আদর্শিকভাবে, যেভাবেই হোক পাকিস্তানের উপরে আমরা থাকব। আজকে সত্যিই তা আমরা আছি উল্লেখ করে এটা ধরে রাখার আহ্বান জানান তিনি।

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদ, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, কার্যনির্বাহী সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তরের সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচি এবং দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির। সভাটি যৌথভাবে পরিচালনা করেন দলের প্রচার ওপ্রকাশনা সম্পাদক তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এবং উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন।




Comments are closed.

এই বিভাগের আরো খবর




ফেসবুকে সব খবর