ভাঙনের মুখে আজিমনগর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় - সব খবর | Sob khobar
  1. admin@sobkhobar.com : admin :
  2. editor@sobkhobar.com : editor :
ভাঙনের মুখে আজিমনগর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় - সব খবর | Sob khobar




ভাঙনের মুখে আজিমনগর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়

সব খবর রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময়: বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১১৮ জন পড়েছে

পদ্মা যুমনার অব্যাহত পানি বৃদ্ধির ফলে তীব্র স্রোতে এবার ভাঙনের হুমকিতে দুর্গম পদ্মাচরের তিনটি ইউনিয়নের একমাত্র এমপিও ভুক্ত আজিমনগর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়। বিদ্যালয়টি থেকে মাত্র ১৩০ মিটার অদূরে পদ্মা।

মঙ্গলবার (৩১ আগষ্ট) সকাল ৭টায় আজিমনগর ইউনিয়নের চরাঞ্চল পরিদর্শন করেছেন মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ এবং পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাইন উদ্দিন। এসময় জেলা প্রশাসকের সাথে হরিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের হরিরামপুর উপজেলার উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. সবুজ হোসেন, আজিমনগর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আওলাদ হোসেন বিপ্লব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, দুর্গম চরাঞ্চল আজিমনগর ইউনিয়নের হাতিঘাটায় ২০০৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় আজিমনগর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়। ওই সময় বিদ্যালয়টি এডিবি’র অর্থায়নে টিনসেটের ১৫টি রুম তৈরির মধ্যদিয়ে যাত্রা শুরু হলেও প্রায় দুই কোটি টাকা ব্যায়ে স্কুল ভবন নির্মিত হচ্ছে।

হরিরামপুর উপজেলা শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে ৬৬ লাখ ৯৭ হাজার টাকা ব্যয়ে শিক্ষা অধিদপ্তরের অধীনে একতলা ভবন (চারতলা ফাউন্ডেশন) নির্মাণ করা হয়। এরপর ২০১৯-২০ অর্থ বছরের ১ কোটি ২৩ লাখ ৫০ হাজার বরাদ্দে পুনরায় শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে ওই একতলা ভবনটির উপরে আরো তিনতলা ভবনের অনুমোদন দেয়া হয়। অনুমোদিত নতুন ভবনের কাজ চলমান রয়েছে।

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের হরিরামপুর উপজেলার উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. সবুজ হোসেন জানান, আজ ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন শেষে জেলা প্রশাসক মহোদয় বিদ্যালয়টি রক্ষায় ভাঙনরোধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন।

হরিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, জেলা প্রশাসক মহোদয় ও জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আজিমনগর ইউনিয়নের দুর্গম চরাঞ্চলে ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে জেলা প্রশাসক মহোদয় জিও ব্যাগ ফেলে ভাঙন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন।

চরাঞ্চলের আজিমনগর ইউনিয়নের ভাঙন পরিদর্শন শেষে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী বরাবর রিপোর্টও পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে জানিয়ে মানিকগঞ্জ জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাইন উদ্দিন জানান, জেলা প্রশাসক মহাদয়সহ আজিমনগর ইউনিয়নে ভাঙন কবলিত স্থান পরিদর্শন করেছি। তীব্র স্রোতের কারণে এই মূহুর্তে বলগেট নিয়ে ভাঙন এলাকায় বালি ফেলা সম্ভব হবে না। তবে মন্ত্রী মহোদয় আমার চীফ ইঞ্জিনিয়ারের সাথে আলোচনা করে যে সিদ্ধান্ত জানাবে আমরা সেভাবেই ব্যবস্থা নেব। বর্তমান ঝুকিপূর্ণ নদীর তীরবর্তী থেকে প্রায় ১৩০মিটার অদূরে নির্মাণাধীন ভবনের কাজ বন্ধ রাখার জন্য তিন দিন আগে জেলা শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরে চিঠি দিয়েছেন বলেও তিনি জানান।

উল্লেখ্য, ২০০০ সালে প্রতিষ্ঠিত আজিমনগর ইউনিয়নের ৭নং ও ৮ নং ওয়ার্ডের হাতিঘাটায় ২টি আশ্রয়ন কেন্দ্রে ভাঙনের হুমকিতে। যেখানে ১৯০টি পরিবার বসবাস করে। শোয়াখাড়া আদর্শ গ্রাম (৫০ টি পরিবার বসবাস করে), হাতিঘাটা বাজার, ৫৭নং হারুকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ইব্রাহিমপুর জামে মসজিদ ও মাদ্রাসা।

আ/লি




Comments are closed.

এই বিভাগের আরো খবর




ফেসবুকে সব খবর