রোগ প্রতিরোধে প্রতিদিন কতবার পানি পান করা উচিৎ | সব খবর | Sob khobar
  1. admin@sobkhobar.com : admin :
  2. editor@sobkhobar.com : editor :
রোগ প্রতিরোধে প্রতিদিন কতবার পানি পান করা উচিৎ | সব খবর | Sob khobar




রোগ প্রতিরোধে প্রতিদিন কতবার পানি পান করা উচিৎ

সব খবর রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময়: শনিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১০১ জন পড়েছে

লাইফস্টাইল ডেস্ক: পানির অপর নাম হল জীবন। চিরাচরিত রুটিনে করোনার ভয়ে ব্যাপক রদবদল হয়েছে। কেউ গলা ভেজাতেন নরম পানীয়, বিকেল গড়াতে না গড়াতেই বা ছুটির দুপুরে কারও হাতে হাতে থাকত অ্যালকোহল জাতীয় পানীয়, সেই মানুষই এখন ঘণ্টায় ঘণ্টায় পানি পান করছে ।

স্বাভাবিক জীবনে ভাইরাস আতঙ্ক থাকলেও সাবধানতা অবলম্বন করে বেরতে হবে। অফিস, পড়াশোনা বা ঘুরাফেরা সবই শুরু হয়েছে । তাও একটা চিন্তা কিন্তু থেকেই যায়। নানা কাজে বাইরে বেরলেও মুখ ঢাকা থাকে মাস্কে। ফলে বাইরে গেলে খাওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই, কারও কারও ক্ষেত্রে তাই পানি পানও কমে গিয়েছে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে জোরদার করে তোলে পানি, যা নানা ভাইরাস ঠেকানোর কাজে সাহায্য করে। কিন্তু পানি কি শুধু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকেই সচল রাখে?

পর্যাপ্ত পানি পান করলে শরীরে ফিরে আসে তরতাজা ভাব। এ সময় তো অনেকেই সকাল-বিকেল ব্যায়াম করছেন, ব্যায়ামের আগে ও পরে পানি পানে ভরপুর এনার্জি পাওয়া যাবে। শরীরে মাত্র ১/৩ শতাংশ পানি কমে গেলে মুড সুইংয়ের সমস্যা হয়, ক্লান্ত লাগে, প্রভাব পড়ে স্মৃতিশক্তি ও মস্তিষ্কের কার্যকারিতাতেও, এমনটাই বলছে গবেষণা।

সারাদিন পানির বদলে কোকা কোলা, কফি খেয়ে কাটিয়ে দিলে সন্ধ্যা হলেই মাথা যন্ত্রণা শুরু হয়, তার মূলে রয়েছে পানি কম পান করা। পর পর কয়েকগ্লাস পানি পান করলেই মিটে যায় সমস্যা।

নিয়মিত কম পানি পানে কোষ্ঠকাঠিন্য হতে পারে। দিনে কয়েক গ্লাস পানি বেশি পান করলে এই সমস্যার হাত থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

পরিবারে কারও কিডনি স্টোন থাকতে পারে । বেশি করে পানি পান করলে হয়তো সে আশঙ্কা কমে যাবে।

মদ্যপানের বদ্ অভ্যাস থাকলে প্রচুর পরিমাণে পানি পান খানিকটা নিস্তার মিলতে পারে বলে, জানাচ্ছে গবেষণা।

গবেষণা বলছে, নিয়মিত যাঁরা খাবার খাওয়ার আগে আধ লিটার পানি পান করেন, তাঁদের ক্ষেত্রে ১২ সপ্তাহের মধ্যে অতিরিক্ত ৪৪ শতাংশ ওজন কমে। ঠান্ডা পানি পান করলে আরও ভাল। বেশ কয়েকটি গবেষণাপত্র বলছে, ঠান্ডা পানিকে শরীরের তাপমাত্রায় নিয়ে আসতেও ক্যালোরি খরচ হয় শরীরের।

কিডনি রোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পানি পানের ক্ষেত্রে বলা হয়েছে সারাক্ষণ পানি পান করবেন না। সাধারণ অবস্থায় ২.৫-৩ লিটার প্রাপ্তবয়স্কমানুষ ৩.৫-৪ লিটার পানি পানই যথেষ্ট । কারণ অতিরিক্ত পানি পানের আবার কিছু ক্ষতিকর দিকও আছে। এছাড়া কোনও রোগের কারণে যদি পানি কম পানের নির্দেশ থাকে, যেমন কিডনির অসুখ, হার্ট ফেলিওর ইত্যাদি। অতিরিক্ত পানি পান করতে চাইলে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

সবখবর/ রাশেদ চৌধুরী




Comments are closed.

এই বিভাগের আরো খবর




ফেসবুকে সব খবর